Logo
বিসিএন বার্তা:
গল্প, উপন্যাস, কবিতা, স্মৃতিচারণ ইত্যাদি লেখা পড়তে "সাহিত্য ও সংস্কৃতি" পাতায় চোখ রাখুন । নিত্যনতুন সংবাদ পেতে বিসিএন চ্যানেলের সাথেই থাকুন...

বসুন্ধরার এমডিকে গ্ৰেপ্তারের ইঙ্গিত দিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিসিএন চ্যানেল ডেস্ক:-রাজধানী গুলশানের অভিজাত ফ্ল্যাট থেকে কলেজ শিক্ষার্থী ‘মুসারাত জাহান মুনিয়া’কে আত্মহত্যায় প্ররোচনার মামলার একমাত্র আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ‘সায়েম সোবহান আনভীর’কে গ্রেপ্তারের ইঙ্গিত দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল ।এ ব্যাপারে শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) গণমাধ্যমকে তিনি বলেন,

“মুনিয়ার ঘটনার তদন্ত হচ্ছে। তদন্তে যদি বেরিয়ে আসে তাহলে গ্রেপ্তার হবে, নিয়মের বাইরে কিছু করা যাবে না”।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আরও বলেন,

যিনি সংক্ষুব্ধ হয়েছেন, তিনি বিচার দিতেই পারেন। বিচারটি আমলে নেওয়া হয়েছে, তদন্তে যদি সব ঠিক থাকে, তা হলে গ্রেপ্তার হবে।”

মুনিয়া’র ডায়েরি:রাজধানী গুলশানের অভিজাত ফ্ল্যাট থেকে কলেজ শিক্ষার্থী মুসারাত জাহান মুনিয়ার মরদেহ উদ্ধারের পরই পাওয়া গেছে মুনিয়ার হাতে লেখা ডায়েরি। ঘটনার পরে তার বড় বোন নুসরাত জাহান তানিয়াও জানান, নিত্যদিনের ঘটনা লিখে রাখা মুনিয়ার অভ্যাস ছিল। পুলিশও জানিয়েছে, মুনিয়ার লেখা ডায়েরিতেও আসামির সঙ্গে তার সম্পর্কের টানাপোড়েন এবং সম্পর্কের স্বীকৃতি আদায়ের বিষয়ে নানা বর্ণনার উল্লেখ রয়েছে।ডায়েরি পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, বসুন্ধরার এমডি সায়েম সোবহান আনভীর আর মুনিয়ার গভীর প্রেমের সম্পর্কের কথা রয়েছে ডায়েরির প্রতিটি পাতায় পাতায়। গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের ১৭ তারিখে মুনিয়া লেখেন, ‘আজকে আনভীরকে নিয়ে স্বপ্ন দেখি। জানি না, তবে সারাদিন তাকে নিয়ে ভাবি হয়তো তাই।একই বছরের অক্টোবর মাসের ৭ তারিখে লেখেন, ‘আজকে তার (আনভীর) কিছু পিচ্ছিাকালের ছবি পাঠালো দেখেই মায়া লাগছিল।’ এভাবেই ডায়েরির প্রতিটি পরতে পরতে আনভীরের প্রতি ভালোবাসার প্রকাশ ঘটান মুনিয়া। তবে সময় গড়ালে ভালোবাসার মধ্যে অভিমান আর কষ্টের কথা যোগ করেন মুনিয়া। ২০২০ এর নভেম্বর মাসের ২৯ তারিখে আনভীরকে উদ্দেশ্য করে লেখেন, ‘তাকে দেয়ার মতো সত্যিকারের ভালোবাসা ছাড়া কিছুই নাই। যা তিনি কোনোদিন বোঝে না আর বুঝলেই কী এইগুলোর কোনো মূল্য নেই।’আনভীরের ফেসবুকের বিভিন্ন বিষয় নিয়েও বর্ণনা করেন ‍মুনিয়া। আনভীরের একটি ছবি প্রাইভেট করতে বললে আনভীর তাকে বলে, ‘তুমি আমার সব খেয়াল রাখ।’বসুন্ধরার এমডি আনভীরের পরিবারের প্রতি সন্মানের কথা জানিয়ে নিজের পরিবারের কষ্টের কথাও লেখেন মুনিয়া। নিজ পরিবারে কোনোদিন শান্তি না পাওয়ার কথাও উল্লেখ করেন মুনিয়া।

দেশ ছেড়েছেন বসুন্ধরার এমডির স্ত্রী-সন্তান: মোসারাত জাহান মুনিয়া” কে আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলার একমাত্র আসামি সায়েম সোবহান আনভীরের স্ত্রী-সন্তান ও পরিবারের কয়েক সদস্য দেশ ছেড়েছেন। আনভীরের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার তিন দিনের মাথায় তাঁরা দেশ ছাড়লেন । বৃহস্পতিবার রাতে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ ও অভিবাসন পুলিশ এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, ফ্লাইটটি ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে রওনা দেয়। এটির গন্তব্য দুবাইয়ের আল মাকতুম আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর।চার্টার্ড ফ্লাইটের (ভাড়া করা বিমান) সদস্য ছিলেন আটজন। যাত্রী তালিকা অনুযায়ী দেশ ছেড়েছেন সায়েম সোবহান আনভীরের স্ত্রী সাবরিনা সোবহান, তাঁদের দুই সন্তান (অপ্রাপ্তবয়স্ক বলে নাম লেখা হলো না), ছোট ভাই সাফওয়ান সোবহানের স্ত্রী ইয়াশা সোবহান এবং তাঁদের মেয়ে ও দুই পরিবারের তিনজন গৃহকর্মী ডায়ানা হার্নানডেজ চাকানান্দো, মোহাম্মদ কাদের মীর ও হোসনে আরা খাতুন। এর আগে সায়েম সোবহান আনভীরের ছোট ভাই সাফওয়ান সোবহানও দেশ ছাড়েন ।

বসুন্ধরার এমডির দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা:বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীরের দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন আদালত ।

তিনি যেন দেশত্যাগ করতে না পারেন সে বিষয়ে ইমিগ্রেশন পুলিশকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে ।

পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) ঢাকা মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলামের আদালত এ আদেশ দেন ।

দেশেই আছেন বসুন্ধরার এমডি:বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান বিরুদ্ধে মামলার পর সারা দেশে শুরু হয় ব্যাপক আলোড়ন । চলছে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা । অনেকের মনে প্রশ্ন ,বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীর এখন কোথায়? সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুঞ্জন উঠেছে, আনভীর সোমবার (২৬ এপ্রিল) রাতেই দেশত্যাগ করেছেন।

তবে ইমিগ্রেশন পুলিশ সূত্র বলছে, বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীর দেশেই আছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.


Develop By : BDiTZone.com